অনলাইন সিকিউরিটি – জেনে নিন কিভাবে নিজেকে সিকিউর রাখবেন

0
1308
অনলাইন সিকিউরিটি

আজকের আর্টিকেলটি একটু অন্য টপিকের। আমি আজ আপনাকে অনলাইন সিকিউরিটি নিয়ে কিছু ইনফরমেশন দিবো , যেন আপনিও আমার মত আপনার সকল সোশ্যাল মিডিয়া/পেমেন্ট প্রোসেসর আইডি/বিভিন্ন মার্কেট প্লেস আইডিগুলো সেভ রাখতে পারেন। তো চলুন বিস্তারিত বকবক শুরু করি !!

আপনি চিন্তা করুণ! অনেক পরিশ্রম করে একটা সোশ্যাল মিডিয়া আইডিকে অনেক ভালো একটা অবস্থানে নিয়ে আসছেন। সোশ্যাল মিডিয়ার জায়গায় হতে পারে আপনার খুব গুরুত্বপূর্ন একটা জিমেইল একাউন্ট , হতে পারে আপনার কোন পেমেন্ট প্রসেসর আইডি এবং হতে পারে আপনার কোন মার্কেট প্লেসের একাউন্ট।

যেই মার্কেট প্লেস থেকে আপনি মোটামুটি ভালো একটা এমাউন্ট প্রতিমাসে ইনকাম করেন। তাই আপনার উচিৎ আপনার এই সোশ্যাল/অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোকে ১০০% সেভ বা সিকিউর রাখা।

স্কিল ড্রিভেন VS লেবার ড্রিভেন ইকোনমি কি? বিস্তারিত জানুন এখান থেকে

অনলাইন সিকিউরিট – কিভাবে সিকিউর রাখবেন?

প্রথমে আপনার জিমেল একাউন্ট টিকে সিকিউর করে রাখবেন। আমি জানিনা আপনি জিমেইল/ইয়াহু নাকি অন্য কোন প্লাটফর্ম ইউজ করেন। ধরে নিলাম আপনি জিমেইল ইউজ করেন। এখন আপনাকে জিমেইল একাউন্ট ১০০% সিকিউর রাখার জন্য যে কাজটি করতে হবে –

  • 2-step verification – আপনার একাউন্টটিতে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন অন করে রাখবেন। এই কাজটি করার জন্য আপনাকে খুব বেশি কষ্ট করতে হবেনা। টু স্টেপ ভেরিফিকেশন কিভাবে অন করতে হয় যদি আপনি না জেনে থাকেন তাহলে এখান থেকে ভিডিওটি দেখে আসেন।
  • জিমেইল আইডি অন্যের কাছে শেয়ার করবেন না – আপনি যে জিমেইল দিয়ে খুব গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো করে থাকনে। সেই জিমেইল একাউন্ট পাবলিকলি শেয়ার করবেন না। এই দুইটি কাজ জিমেইল একাউন্ট এর ক্ষেত্রে ১০০% করবেন। টু স্টেপ ভেরিফিকেশন এবং জিমেইল আইডি পাবলিকলিকলি শো না করা।

সোশ্যাল মিডিয়া কেন এত সিকিউর রাখতে হবে?

আপনি যদি অনলাইনে টিকে থাকতে চান এবং অনলাইকে আর্নিং এর মাধ্যম হিসেবে নিতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে অনলাইন সিকিউরিটি সম্পর্কে জানতে হবে এবং অনলাইনে সিউকির হয়ে টিকে থাকতে হবে।

আপনি অনেক পরিশ্রম করার পরে একটা ভালো অবস্থানে চলে আসলেন বাট আপনি আপনার অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোকে তেমন সিকিউর রাখলেন না। একটা সময় দেখা যাবে আপনার গুরুত্বপূর্ণ সব একাউন্ট হ্যাকারদের হাতে। তখন আপনি চাইলেও আর সেই একাউন্ট গুলো ফিরে পাবেন না।

হ্যাকাররা সব সময় তাদের উদ্বশ্য বাস্তবায়ন করার জন্য উত পেতে থাকে। সবার একাউন্ট হ্যাকাররা হ্যাক করেনা। যাদের একাউন্ট গুলো হ্যাক করলে তাদের ক্ষুদা নিবারন হবে তাদের একাউন্ট গুলোকেই টার্গেট করা হয়ে থাকে।

তাই আপনাকে আবারো সাবধান করে দিচ্ছি। অনলানে আপনাকে টিকে থাকতে হবে আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার সব গুলো একাউন্ট/আইডি কে ১০০% সিকিউর করে রাখার মাধ্যমে। এই কাজ গুলো করে রাখা আপনার অনলাইনে টিকে থাকার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

সোশ্যাল মিডিয়া বা ফেসবুক কিভাবে সিকিউর রাখবেন?

আমি আপনাকে একটু আগে জিমেল আইডি সিকিউর রাখার করা বলেছি এবং একটি ভিডিও দিয়েছি যে কিভাবে জিমেইল আইডি সিকিউর রাখা যায়।

জিমিলে আইডি সিকিউর রাখা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ন কারন আপনার সব ধরনের একাউন্ট/আইডি এই জিমেইল একাউন্ট দিয়েই আপনি করে থাকেন। তেমনিভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য আপনি যে জিমেইল আইডি ব্যাবহার করবেন সেই জিমেইল আইডি আগে সিকিউর করবেন।

তারপর আপনি যদি ফেসবুক একাউন্ট কে আলাদাভাবে সিকিউর রাখতে চান তাহলে ফেসবুকের সেটিং অপশনে থেকে কাজটি করতে পারবেন। ফেসবুক আইডি সিকিউর রাখার জন্য এই ভিডিওটি দেখে নিন।

আমি শুধু ফেসবুক কিভাবে সিকিউর রাখতে হয় সেই মাধ্যম টি দেখিয়ে দিয়েছি ভিডিওর মাধ্যমে। ফেসবুকের মতন সেইম সিস্টেমে অন্য সোশ্যাল মিডিয়া গুলোও সিকিউর করা যায়।

আপনি একটু সেটিং থেকে খুঁজলেই ১০০% পেয়ে যাবেন। আমি চাই আপনি নিজেও একটু চেষ্টা করেন। তাই সব গুলো একাউন্ট সিকিউর রাখার সেটিং আমি দেখালাম না। আমি চাইলেই দেখাতে পারি , বাট আর্টিকেল টি অনেক বেশিই বড় হয়ে যাবে।

আর আমি তো জানিনা আমার বকবক আপনাদের কতটুকু ভালো লাগছে। যদি আপনি কোথায় আটকিয়ে যান আমার সাথে যোগাযোগ করবেন আমি দেখিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব। আমার সাথে যোগাযোগ করার সব মাধ্যম আমার ওয়েবসাইটে দেওয়া আছে। তাই চিন্তার কারন নেই।

শেষ কিছু কথা

আজকের টপিক “অনলাইন সিকিউরিটি” আপনাদের কেমন লেগেছে কমেন্ট করে জানাবেন। ভালো খারাপ সব টাইপের কমেন্ট করার ১০০% অধিকার আপনাদের আছে। ভুল হলে ধরিয়ে দিবেন , আমি মানুষ তাই ভুল আমার হতেই পারে। আবার বকবক করব অন্য কোন আর্টিকেলে। সবাই ভালো থাকবেন।

ধন্যবাদ !!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here