কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি? প্রকারভেদ সহ বিস্তারিত আলোচনা।

কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি? প্রকারভেদ সহ বিস্তারিত আলোচনা।

আজকের বাংলা ব্লগে আপনাকে স্বাগতম। আজকের ব্লগে আমি কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি এবং এর প্রকারভেদ নিয়ে বিস্তারিত কিছু ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করব। বর্তমানে আমরা সবাই কম্পিউটার ইউজ করি, কিন্তু কতজন আছি যে, কম্পিউটারের খুটিনাটি সব কিছু সম্পর্কে জানি বাঁ জানার চেষ্টা করি?

আজকে আমরা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সম্পর্কে স্বচ্ছ একটি ধারণা নিব।

কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কি?

কম্পিউটার নেটওয়ার্ক এমন একটি ডিজিটাল ব্যবস্থা, যেখানে দুই বাঁ ততোদিক কম্পিউটারের মধ্যে তথ্য, ফাইল, ডকোমেন্টস আদান প্রদান করা যায়।

কম্পিউটার নেটওয়ার্কের বাংলা অর্থ – বিস্তীর্ণ জালিকা, অর্থাৎ এটি অনেকটা জায়গা জুরে জালিকার ন্যায় কাজ করে বলে একে বিস্তীর্ণ জালিকার সাথে তুলনা করা হয়েছে।

যেমন – একটি অফিসে অনেকগুলো কম্পিউটার এক সাথে LAN (লোকার এরিয়া নেটওয়ার্ক) কাকেনশনের মাধ্যমে যুক্ত থাকে, এতে করে প্রতিটা কম্পিউটার একে অপরের সাথে তথ্য আদান প্রদান করতে পারে, এই ব্যাবস্থাকে অনেকটা বিস্তীর্ণ জালিকার ন্যায় কল্পনা করা যায়।

কম্পিউটার নেটওয়ার্কের প্রকারভেদ

সাধারণত তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে –

LAN (ল্যান) নেটওয়ার্ক

LAN এর ফুল টার্ম হচ্ছে – লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক। কাছাকাছি বাঁ পাশাপাশি অবস্থিত দুই বাঁ ততোদিক কম্পিউটার এক সাথে কোন একটি নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত থেকে তথ্য আদান প্রদান করতে পারলে, সেই সিস্টেম কে LAN বাঁ লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক বলা হয়।

যেমন – অফিস তথা একই বিল্ডিং এর মধ্যে যে নেটওয়ার্ক সিস্টেম সেটাপ করা হয় তাকেই লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক হিসেবে ধরা হয়।

এই ধরনের নেটওয়ার্ক সিস্টেমে ব্যবহৃত ডিভাইস বাঁ কম্পোনেট গুলো হলো, হাব, সুইচ, রিপিটার ইত্যাদি। আমাদের দৈনন্দিন জীবনে এই ধরনের নেটওয়ার্ক সিস্টেম আমরা সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করে থাকি, অফিস, আলাদত বাঁ ছোটখাট কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে।

MAN (ম্যান) নেটওয়ার্ক

মেট্রোপলিটান এরিয়া নেটওয়ার্ক, যাকে সর্ট ফর্মে বলা হয় MAN (ম্যান)। ছোট শহর বাঁ এলাকা ভিত্তিক যে নেটওয়ার্ক সিস্টেম সেটাপ করা হয়ে থাকে তাকেই মেট্রোপলিটান এরিয়া নেটওয়ার্ক বলা হয়ে থাকে।

মেট্রোপলিটান এরিয়া নেটওয়ার্ক কয়েকটা ল্যান কানেকশনের মাধ্যেমে গঠিত হয়। এই টাইপের নেটওয়ার্ক সিস্টেম ৫০ থেকে ৭৫ মাইল পর্যন্ত এরিয়া নিয়ে গঠিত হয়।

এই টাইপের নেটওয়ার্ক সিস্টেমে ডাটা ট্রান্সফার স্প্রিড গিগাবিট পার সেকেন্ড এবং এ ধরনের নেটওয়ার্ক সিস্টেমে ব্যবহৃত ডিভাইস বাঁ কম্পোনেন্ট হলো, রাউটার, সুইজ, মাইক্রোওয়েভ, এন্টেনা ইত্যাদি।

WAN (ওয়ান) নেটওয়ার্ক

ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক (Wide Area Network) যার সর্ট ফর্ম হলো, WAN (ওয়ান)। পাশাপাশি দুটি দেশ নিয়ে যে নেটওয়ার্ক সিস্টেম গঠিত হয়, তাকেই ওয়াইড এরিয়া (Wide Area Network) বলা হয়।

এই টাইপের নেটওয়ার্ক সিস্টেমে ডাটা ট্রান্সফার স্প্রিড সাধারণত, ৫৬ কেবিপিএস থেকে ১.৫৪৪ এম্বিপিএস পর্যন্ত হয়ে থাকে।

ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক সিস্টেম সেটাপ করা একটু জটিল, আর এই টাইপের নেটওয়ার্ক সিস্টেম সাধারণত ভৌগলিক কয়েকটি এলাকা নিয়ে গঠিত হয়, অর্থাৎ পাশাপাশি দুই দেশের মধ্যে এই সিস্টেমে নেটওয়ার্ক সেটাপ কর হয়।

Wide Area Network সিস্টেমে ব্যবহৃত ডিভাইস বাঁ কম্পোনেন্ট গুলো, রাউটার মডেম, ওয়ান সুইজ ইত্যাদি।

PAN কি?

পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Personal Area Network) কে সর্ট ফর্মে PAN বলা হয়। আপনি চাইলে একই রুমের মধ্যে দুটি কম্পিউটারের মধ্যে নেটওয়ার্ক সিস্টেম সেটাপ করতে পারেন, আর এই টাইপের নেটওয়ার্ক সিস্টেম কে পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Personal Area Network) বলা হয়।

পারসোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক সিস্টেমে একটি কম্পিউটারের সাথে – পেনড্রাইভ, প্রিন্টার, এক্সটারনাল হার্ডড্রাইভ ইত্যাদি কম্পোনেন্ট গুলো যুক্ত থাকার মধ্য দিয়ে গঠিত হয়ে থাকে।

শেষ কিছু কথা

আশাকরছি আজকের ব্লগে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক নিয়ে কিছুটা হলেও স্বচ্ছ ধারনা দিতে পেরেছি। ব্লগটি ভাল লাগলে আপনার ফ্রেন্ডদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

এছাড়া আমাদের একটি ইউটিউব চ্যানেল আছে, এখান থেকে সাবসক্রাইব করে রাখতে পারেন। টেকনোলজি সম্পর্কিত অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে আমরা আপলোড দিয়ে থাকি।

আজকের ব্লক নিয়ে কোন প্রশ্ন থাকলে নিচের কমেন্ট বক্সে করে ফেলুন। সবাইকে ধন্যবাদ।

Kawkab Nadim

আস সালামু আলাইকুম! আমি কাওকাব নাদিম! কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং সাবজেক্টে জোর করে অনার্স করেছি ☹️। যদিও আমি একজন ইঞ্জিনিয়ারিং রিলেটেড পারসোন, তবুও অনলাইন মার্কেটিং এবং টেকনোলজি নিয়ে ঘাটাঘাটি করতে আমার মন থেকে ভালোলাগা কাজ করে ❤️ এখানে ঘাটাঘাটি বলতেই আমার কাছে সত্যিকারের পড়াশুনা 🙂 মাঝে মধ্যে আমার বিভিন্ন টপিকে আর্টিকেল লিখতে ভালো লাগে, আর সেই ভালো লাগা থেকেই আমার এই পারসোনাল ওয়েবসাইট। আমার আর্টিকেল গুলো আপনাদের ভালো লাগলে অন্যদের সাথে শেয়ার করে জানিয়ে দিতে ভুলবেন না। নিজেকে নিয়ে আর তেল দেওয়ার কিছুই নাই 😉 আমার সাথে কানেক্ট থাকতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন। ধন্যবাদ!

Leave a Reply